কথা ছিল আত্মহত্যা করবেন একসঙ্গে ,শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ান প্রেমিকা-দোহারের সংবাদ – দোহারের সংবাদ
  1. admin@doharersongbad.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দোহার নবাবগঞ্জের জন্য ৪০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে সালমান এফ রহমান নবাবগঞ্জে অবৈধভাবে মাটি কাটায় ৪ জনের কারাদন্ড-দোহারের সংবাদ ভূমধ্যসাগরে নৌকায় অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৯ জনের অধিকাংশই বাংলাদেশি-দোহারের সংবাদ মদ পানে কি ৪০ দিন শরীর নাপাক থাকে? দোহারের সংবাদ পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় টিউলিপ চাঁষ ভিড় জমাচ্ছে দেখতে আসা দর্শনার্থীরা-দোহারের সংবাদ সাভারের কলমায় জুটের গোডাউনে আগুন-দোহারের সংবাদ আমিন আমিন ধ্বনিতে সমাপ্ত হ‌লো ইজ‌তেমার দ্বিতীয় প‌র্বের-দোহারের সংবাদ চলে গেলেন দর্শক নন্দিত অভিনেতা আহমেদ রুবেল-দোহারের সংবাদ দোহারে পদ্মায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় দায়ে ৩জনের কারাদণ্ড ও ২লক্ষ টাকা জরিমানা-দোহারের সংবাদ বৃষ্টি হতে পারে ৪ বিভাগে-দোহারের সংবাদ

কথা ছিল আত্মহত্যা করবেন একসঙ্গে ,শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ান প্রেমিকা-দোহারের সংবাদ

দোহারের সংবাদ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ৬৮ বার পঠিত

কথা ছিল একসঙ্গে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করবেন প্রেমিক-প্রেমিকা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়ান প্রেমিকা। তবে ট্রেনে কাটা পড়লেন প্রেমিক।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাতে ভারতের রাজস্থানে ঘটনাটি ঘটেছে। এতে মৃত্যু হয়েছে ৩৪ বছর বয়সী প্রেমিক রাজু ভাটের।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজুর স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। তারপরও রাজুর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ২০ বছরের এক তরুণীর। তবে দুজনেই বুঝেছিলেন বিয়ে করা সম্ভব নয়। এ নিয়ে ঝগড়ার পর একসঙ্গে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রাজু ও তার প্রেমিকা। এরপর চলন্ত ট্রেনের সামনে রাজু ঝাঁপ দিলেও সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে পিছিয়ে যান রাভিনা।

ঘটনার পর ট্রেনের গার্ড ও স্টেশনের অন্যান্য কর্মীরা রাজুর মরদেহ বালোতরা রেলস্টেশন নিয়ে আসে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাজুর মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

নিহতের ভাই বীরমারাম অভিযোগ করেন, রাজুকে এর আগেও হুমকি দেওয়া হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, রাজুকে মহিলার পরিবার খুন করেছে এবং তার মরদেহ ট্রেনের সামনে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রাজুর মরদেহ তারা নিতে রাজি হননি।

জানা গেছে, রাজু ভাট শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা