দোহারে স্ত্রীকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখম স্বামীর-দোহারের সংবাদ – দোহারের সংবাদ
  1. admin@doharersongbad.com : admin :
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দোহারে রাতের আধারে বসতঘরে দুর্বৃত্তদের আগুন,১২ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই-দোহারের সংবাদ শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে আগামীকাল ঈদ-দোহারের সংবাদ নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার-দোহারের সংবাদ ঈদের তারিখ ঘোষণা করলো সৌদি আরব-দোহারের সংবাদ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারী,আহত ৭-দোহারের সংবাদ দোহারে এসএসসি-৯৫ ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বন্ধুদের নিয়ে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত-দোহারের সংবাদ গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দোহার ও নবাবগঞ্জে লোডশেডিং-দোহারের সংবাদ ঢাকাসহ চার বিভাগে হিট অ্যালার্ট জারি-দোহারের সংবাদ সাভারে ৯ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার-দোহারের সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে যুবক নিহত-দোহারের সংবাদ

দোহারে স্ত্রীকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখম স্বামীর-দোহারের সংবাদ

দোহারের সংবাদ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৯৪ বার পঠিত

ঢাকার দোহারে স্ত্রীকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে স্বামী পালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার (২৭ অক্টোবর) ভোর পাঁচটার দিকে উপজেলার উত্তর জয়পাড়া চৌধুরীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহতের বাবা বাদি হয়ে দোহার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, আহত স্ত্রী চন্দ্রবান (৪৩) নবাবগঞ্জ উপজেলার আলালপুর গ্রামের শামসুদ্দিনের মেয়ে। তার বিয়ে হয় দোহার উপজেলার উত্তর জয়পাড়া চৌধুরীপাড়া এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে আলী হোসেনের সাথে। সংসার জীবনে তাদের ঔরসজাত কোনো সন্তান হয়নি। আহত চন্দ্রবান বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

আহত চন্দ্রবান জানান, আমাদের সংসার জীবনে কোনো সন্তান না হওয়ায় একটি ছেলে ও একটি মেয়ে দত্তক এনে লালন পালন করে আসছিলাম। মেয়ের বয়স বর্তমানে (১৪) আর ছেলের বয়স (৭)। গত ৮/৯ মাস আগে আমার স্বামী আলী হোসেনের কুদৃষ্টি পরে আমার পালিত মেয়ের উপর। বিষয়টি টের পেয়ে মেয়েকে উপজেলার মেঘুলা এলাকার একটি মহিলা মাদ্রাসায় ভর্তি করে দেই। মেয়েকে আর বাসায় আসতে দেই না। গত দুই দিন আগে আমার স্বামী মেয়েকে বাসায় আনতে বলে, আমি ভাবলাম হয়তো সে এখন ভাল হয়ে গেছে।
কিন্তু মেয়েকে বাসায় আনার পরে গত রাতে আবার শুরু হয় তার মেয়ের প্রতি লোলুপ দৃষ্টি। রাতে ঘুম আসে না। আনুমানিক রাত তিনটার দিকে শুরু করে আমার সাথে কথা কাটাকাটি। পরে আমি মেয়ের রুমে ডুকে ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেই। পরে ভোর পাঁচটার দিকে দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে রামদা দিয়ে আমাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। আমাদের আত্নচিৎকারে সবাই এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে এনে ভর্তি করে এবং আলী হোসেন পালিয়ে যায়। আমার মাথায়, দুই হাতে, মুখে ও পিঠে কুপিয়েছে। আমি আইনের কাছে এর বিচার চাই।

চন্দ্রবানের শ্বাশুড়ি ও আলী হোসেনের মা পানু বেগম জানান, মাঝে মাঝেই ছেলে ও ছেলের বউয়ের সাথে ঝগড়া লাগে। বউকে মারে আবার চিকিৎসা করায়। তবে গতকালকে কি নিয়ে ঝগড়া লাগছে তা জানিনা। তবে এই ভাবে কুপানো ঠিক হয়নি।

এবিষয়ে দোহার থানার ডিউটি অফিসার এসআই হাচান মাহমুদ জানান, আমরা এই মর্মে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ভিকটিম চিকিৎসাধীন রয়েছে। অভিযুক্ত আলী হোসেনকে এখনো পাওয়া যায়নি। তদন্ত চলমান আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা