৯৬ লিটার রক্তদান করে করলেন বিশ্বরেকর্ড-দোহারের সংবাদ – দোহারের সংবাদ
  1. admin@doharersongbad.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দোহারে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে: আটক ৭-দোহারের সংবাদ নবাবগঞ্জে শিশু হত্যার ঘটনায় মা ও ছেলে আটক-দোহারের সংবাদ দোহারে বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালীন সময়ে মারপিটের ঘটনায় রাহিম কমিশনার গ্রেপ্তার-দোহারের সংবাদ দোহারে বেকারীতে অভিযান ২ লক্ষ টাকা জরিমানা-দোহারের সংবাদ চোরের ভয়ে মোটরসাইকেলে হ্যান্ডকাপ পুলিশের! দোহারের সংবাদ দোহারে কোঠাবাড়ির চক থেকে বৃদ্ধের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার-দোহারের সংবাদ সারাদেশে বৃষ্টি কবে হতে পারে, জানাল আবহাওয়া অফিস-দোহারের সংবাদ দোহারে সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা-দোহারের সংবাদ নবাবগঞ্জে গরু ডাকাতির ঘটনায় আটক-৬-দোহারের সংবাদ দোহারে মৃতপ্রায় ও রোগাক্রান্ত গরুর মাংস বিক্রির দায়ে ৩ জনের জেল-দোহারের সংবাদ

৯৬ লিটার রক্তদান করে করলেন বিশ্বরেকর্ড-দোহারের সংবাদ

দোহারের সংবাদ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৪৫ বার পঠিত

রক্তদান একটি মহৎ কাজ হিসেবেই গণ্য সবার কাছে। এবার এই কাজের জন্য বিশ্বরেকর্ড গড়লেন জোসেফিন মিকালুক। তবে তার রেকর্ডের পেছনের কারণ একটু ভিন্ন। তিনি তার জীবনে সর্বমোট ২০৩ ইউনিট রক্তদান করেছেন। এক ইউনিট রক্ত প্রায় ৪৭৩ মিলির সমান। এ কারণে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি রক্তদানকারী নারী হিসেবে গিনেস ওয়ার্ল্ড স্বীকৃতি দিয়েছে তাকে।৮০ বছর বয়সেও নিয়মিত রক্তদান করেন জোসেফিন। ১৯৬৫ সালে যখন তার ২২ বছর বয়স, সেই থেকে নিয়মিত রক্তদান করা শুরু করেন জোসেফিন। রক্তদানের ক্ষেত্রে আমেরিকায় যেহেতু বয়সের কোনো ঊর্ধ্বসীমা নেই, সেই কারণে ৮০ বছরেও রক্তদানের অভ্যেস বদলাতে নারাজ তিনি। নিজের বোনের কথায় প্রভাবিত হয়েই প্রথম রক্ত দেওয়া শুরু হয় জোসেফিনের। তারপর থেকে আর থামেননি তিনি।

সারা জীবনে মোট ৯৬ লিটার অর্থাৎ ২০৩ ইউনিট রক্ত দিয়েছেন তিনি। তবে নিজের এই কৃতিত্বকে বড় করে দেখতে নারাজ জোসেফিন। রক্তদানের বিষয়ে সারা পৃথিবীর মানুষকে উৎসাহ দিতে চান জোসেফিন। গিনেস বুকে নাম উঠলেও তিনি বলেন, কোনো রকম রেকর্ডের লোভে এই কাজ করেননি তিনি। বরং মানুষের প্রাণ বাঁচানোই বেশি গুরুত্বপূর্ণ এমনটাই মনে করেন এই জোসেফিন।জোসেফিনের আগে এই রেকর্ডটি ছিল ভারতের মধুরা অশোক কুমারের। তিনি মোট ১১৭ ইউনিট রক্তদান করে এই রেকর্ড করেছিলেন। সেদিক থেকে বলা যায়, জোসেফিনের রেকর্ড তার থেকে অনেক বেশি এগিয়ে।

জোসেফিনের রক্তের গ্রুপ হল O+। হাসপাতালের এই টাইপের রক্তের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। আমেরিকান রেড ক্রসের তথ্য মতে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যার ৩৭ শতাংশ মানুষের রক্তের গ্রুপ O+। জোসেফিন বছরে চারবার রক্তদান করেন। তার ৪ সন্তান। শুধু গর্ভাবস্থার বছরগুলোতে তিনি রক্ত দান করেননি। এছাড়া তার এই মহৎ কাজ তেমে থাকেনি অন্য দিনগুলোতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা