অন্ধ শিল্পী নরেশ দাস বাঁচতে চায় – দোহারের সংবাদ
  1. admin@doharersongbad.com : admin :
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দোহারে রাতের আধারে বসতঘরে দুর্বৃত্তদের আগুন,১২ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই-দোহারের সংবাদ শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে আগামীকাল ঈদ-দোহারের সংবাদ নবাবগঞ্জে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার-দোহারের সংবাদ ঈদের তারিখ ঘোষণা করলো সৌদি আরব-দোহারের সংবাদ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারী,আহত ৭-দোহারের সংবাদ দোহারে এসএসসি-৯৫ ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বন্ধুদের নিয়ে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত-দোহারের সংবাদ গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দোহার ও নবাবগঞ্জে লোডশেডিং-দোহারের সংবাদ ঢাকাসহ চার বিভাগে হিট অ্যালার্ট জারি-দোহারের সংবাদ সাভারে ৯ ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার-দোহারের সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে যুবক নিহত-দোহারের সংবাদ

অন্ধ শিল্পী নরেশ দাস বাঁচতে চায়

দোহারের সংবাদ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই, ২০২২
  • ১২৫ বার পঠিত

বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের তালিকাভুক্ত শিল্পী অন্ধ নরেশ দাসের দুটি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। চিকিৎসকরা পরামর্শ দিয়েছেন নিয়মিত ডায়ালাইসিসের। কিন্তু অর্থাভাবে তার চিকিৎসা করাতে পারছে না পরিবার। তাই মানিকগঞ্জের গুণী এই শিল্পীকে বাঁচাতে বিত্তবানদের সহযোগিতা চেয়েছেন পরিবার।

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার উথলী এলাকার বাসিন্দা নরেশ দাস। কণ্ঠের যাদুতে জয় করেছেন লাখো মানুষের হৃদয়। টেলিভিশন, মঞ্চ, ডিজিটাল মিডিয়া সবখানেই তার ছিলো সরব উপস্থিতি।গানের অ্যালবামও বেরিয়েছে বেশ কয়েকটি।কিন্তু শরীরে বেঁধেছে দুরোরোগ্য ব্যাধি। তাই গান থেকে দুরে আছেন বছর খানেক ধরে। সুস্থ হয়ে আবারো গানে ফেরার আশা তার।

শিল্পী নরেশের বড় ভাই গনেশ চন্দ্র দাস জানান, ‘জন্মের এক বছরে মাথায় টাইফয়েড জ্বরে দুটি চোঁখই অন্ধ হয়ে যায় তার। ছোট বেলা থেকেই গানের প্রতি ঝোঁক ছিল। বড় হয়ে গানকেই পেশা হিসেবে নেন। দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রায় সব শিল্পীর সাথেই এক মঞ্চে গান করছেন তিনি। গান গেয়ে যা আয় হতো তা দিয়ে চলতো চার সদস্যের সংসার।কিন্তু হঠাৎ করেই অসুস্থ হয়ে পড়ে। প্রথমে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করানো হয়। কিছু্তেই সুস্থ না হওয়ায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি হাসাতালে নেয়া হয়। সেখানে পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার দুটি কিডনিই ১২.৬০% নষ্ট হয়ে গেছে। পরামর্শ দেন নিয়মিত ডায়ালাইসিস করানোর।’নরেশের ভাই জানান, দরদভরা কন্ঠ ছাড়া তার ভাইয়ের আর কিছুই নেই। সহায় সম্পদহীন ভাইয়ের জন্য তাই দেশবাসীর কাছে সাহায্য কামনা করেছেন তিনি। পরিচিতজনদের সহযোগিতা ও ধার দেনা করে কোনোমতে চিকিৎসা কাযর্ক্রম চলছে আপাতত। দ্রুতই প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা।

তিনি আরও বলেন, ‘তিনি চান তাকে যেন ভারতে নিয়ে চিকিৎসা করাই। কিন্তু সেই চিকিৎসার ব্যয় মেটানোর মতো আর্থিক সামর্থ্য নেই আমাদের।’

নরেশের সহশিল্পী শঙ্কর কুমার সরকার ও ইউনূছ আলম জানান, ‘গান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে খুবই কষ্টে আছেন শিল্পী নরেশ। যেখানে সংসারই চলছে না সেখানে উন্নত চিকিৎসা করানো কিভাবে সম্ভব? তাই তাকে বাঁচাতে সবার সহযোগিতা দরকার।’

অসুস্থ শিল্পী নরেশ চন্দ্র দাস বলেন, ‘দুটি চোঁখ অন্ধ হওয়ায় পৃথিবীর আলো দেখতে পাই না। হাজারো ভক্তের মাঝে আমি গান করি। সবাই আমার গান পছন্দ করে, আমাকে ভালোবাসে। এই ভালোবাসাই আমার সম্পদ। কিন্তু এখন আর পারছি না। সুন্দর এই পৃথিবীতে আমি বাঁচতে চাই। ভক্তদের মাঝে ফিরে আবারো গান গাইতে চাই। এজন্য প্রয়োজন আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতা।

শিল্পী নরেশ দাসকে সহযোগিতা করতে চাইলে তার পার্সোনাল বিকাশ ও নগদ ০১৭৩১২১৪৮৮৪ নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে।তথ্য ও ছবি সংগৃহীত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা